মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ০১:৪৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :

সৌদি থেকে ফিরতে আগ্রহীদের পর্যায়ক্রমে দেশে আনা হবে : মন্ত্রণালয়

  • আপডেট টাইম : সোমবার, ১৫ জুন, ২০২০, ৫.৩৮ পিএম
  • ১৫৬ বার পঠিত

এটিএম নিউজ ডেস্ক

সৌদি আরব থেকে দেশে ফিরতে আগ্রহী বাংলাদেশী শ্রমিকদের পর্যায়ক্রমে দেশে ফেরত আনার বিষয়ে সরকারের সিদ্ধান্তে সম্মতি প্রকাশ করেছে সৌদি আরব।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেনের সাথে রোববার ফোনে আলাপকালে সৌদি আরবের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফয়সাল বিন ফারহান আল সৌদ এ সিদ্ধান্তের বিষয়ে একমত প্রকাশ করেন বলে সোমবার মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, কোয়ারেন্টাইন সুবিধার নিশ্চিত করতে সৌদি আরব থেকে দেশে ফিরতে আগ্রহী প্রবাসী শ্রমিকদের পর্যায়ক্রমে দেশে আনা হবে। তবে ফেরত আনার ক্ষেত্রে আটকা পড়া উমরা পালনকারী, সে দেশে অধ্যয়নরত ছাত্র এবং নারী গৃহকর্মীদের অগ্রাধিকার দেয়া হবে।

ফোনে আলাপকালে ড. মোমেন করোনা পরবর্তী পরিস্থিতিতে সৌদি আরবের কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধি ও মৎস্য চাষে বাংলাদেশের কৃষি শ্রমিকদের কাজে লাগাতে অনুরোধ করেন।

তিনি উল্লেখ করেন, কৃষি উৎপাদনে সৌদি আরবের কোম্পানিগুলো সে দেশের বাইরে অন্য দেশেও বাংলাদেশের দক্ষ কৃষি শ্রমিকদের কাজে লাগিয়ে খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পারবে।

সৌদি আরবে অন্য খাতে কর্মরত বাংলাদেশী শ্রমিকদের কৃষি খাতে কাজে লাগানোর অনুরোধ করেন ড. মোমেন। তাছাড়া তথ্যপ্রযুক্তিতে দক্ষ বিপুল সংখ্যক বাংলাদেশীকে সৌদি আরব কাজে লাগাতে পারে বলে তিনি মত দেন।

বাংলাদেশের কৃষি শ্রমিক এবং তথ্যপ্রযুক্তি খাতে দক্ষদের কাজে লাগানোর বিষয়ে ফয়সাল বিন ফারহান আল সৌদ উৎসাহ প্রকাশ করেন।

এ সময় সৌদি আরবকে বাংলাদেশ থেকে হালাল গোস্ত আমদানির আহ্বান জানিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেন বলেন, এ বিষয়ে বাংলাদেশ ও সৌদি আরবের মধ্যে যৌথ প্রকল্প স্থাপন করা যেতে পারে। বাংলাদেশ থেকে উন্নত সবজি ও পিপিই আমদানির সুযোগ আছে বলেও জানান তিনি।

ড. মোমেন ওআইসির সদস্য দেশগুলোর ওপর করোনা মহামারির প্রভাব মোকাবিলায় করণীয় নির্ধারণ, অর্থনীতি পুনরুদ্ধার ও অর্থনৈতিক স্থিতিশীলতা নিশ্চিতকরণ, জনগণের জীবন ও জীবিকা রক্ষা এবং কোভিড-১৯ রেসপন্স অ্যান্ড রিকভারি ফান্ড গঠনের বিষয়ে আলোচনার জন্য ওআইসির পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের একটি বিশেষ ভার্চুয়াল সভা আয়োজনের বিষয়ে সৌদি আরবের সহায়তা চান।

এ সভা আয়োজনে যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণের বিষয়ে আশ্বস্ত করেন সৌদি আরবের পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

প্রবাসী শ্রমিকরা কর্মহীন হলে তাদের প্রশিক্ষণসহ কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে কোভিড-১৯ রেসপন্স অ্যান্ড রিকভারি ফান্ড অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারবে বলে এ সময় বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী উল্লেখ করেন।

মিয়ানমারের জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর দ্রুত স্বদেশে প্রত্যাবর্তনের ক্ষেত্রেও সৌদি আরবের সহযোগিতা চান ড. মোমেন। এ বিষয়ে সৌদি আরবের সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে বলে জানান ফয়সাল বিন ফারহান আল সৌদ।

বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী রোহিঙ্গা বিষয়ে সৌদি আরবের অব্যাহত সাহায্যের জন্য দেশটির সরকারকে ধন্যবাদ জানান। সেই সাথে সৌদি আরবে করোনা আক্রান্ত বাংলাদেশীদের চিকিৎসাসহ প্রবাসী বাংলাদেশীদের সার্বিক সহযোগিতার জন্যও সৌদি সরকারকে ধন্যবাদ দেন ড. মোমেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

doeltv38GRD5838
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By ATM News