রবিবার, ২২ মে ২০২২, ১১:৩৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
ঈদে আসছে জাহিদ এবং করিমের “ছিনতাই গরিতাম” কক্সবাজারে আলোচিত মোরশেদ হত্যার সাথে জড়িত ৫ আসামি চট্টগ্রাম থেকে গ্রেপ্তার এক রাজা এবং তিন মন্ত্রীর গল্প —— কক্সবাজারে ইয়াবাসহ সাবেক ফুটবলার ও জেলা ফুটবল এসোসিয়েশনের প্রশিক্ষক হিসেবে দায়িত্বরত খালেদ মোশারফ সহ দুই জন আটক। রাংগামাটি সদর তবলছড়ির খানবাড়ি সংলগ্ন এলাকায় ভয়াবহ অগ্নিকান্ড। সাতক্ষীরা সীমান্ত থেকে ২৪৯ গ্রাম ওজনের ০২টি স্বর্ণের বারসহ ০১ জন পাচারকারী আটক কুষ্টিয়ায় লালন স্মরণোৎসবের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ট্রাস্টি চেয়ারম্যান জাফর, সভাপতি সোহেল, বিএমএসএফের ১৩১ সদস্যের কমিটি গঠিত প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার ৮টা থেকে ৯টা বাজলেই কামরাঙ্গীরচরের রাস্তায়, অলি গলিতে ধুলির ঝড়

সারাদেশে অক্টোবর মাসে ২১৬ ধর্ষণ!”

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ৪ নভেম্বর, ২০২০, ১২.০৮ পিএম
  • ২৩৪ বার পঠিত

“সারাদেশে অক্টোবর মাসে ২১৬ ধর্ষণ!”

 

সারাদেশে অক্টোবর মাসে ২১৬ জন নারী ও শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। এর মধ্যে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে ৪৪টি। অক্টোবর মাসে শিশু নির্যাতন উদ্বেগজনকভাবে বৃদ্ধি পেয়ে ১০১ কন্যাশিশু নির্যাতনসহ ৪৩৬ জন নারী ও কন্যাশিশু নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে।

 

মঙ্গলবার (৩রা নভেম্বর) বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ থেকে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এসব তথ্য জানায় সংগঠনটি।

 

বিবৃতিতে মহিলা পরিষদ জানিয়েছে, বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের লিগ্যাল এইড উপপরিষদে সংরক্ষিত ১৩টি দৈনিক পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদের ভিত্তিতে দেখা গেছে ২০২০ সালের অক্টোবর মাসের শিশু নির্যাতন উদ্বেগজনকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদ অনুসারে অক্টোবর মাসে মোট ৪৩৬ জন নারী ও কন্যাশিশু নির্যাতনের শিকার হয়েছে।

 

তার মধ্যে ৪৪ জন সংঘবদ্ধ ধর্ষণসহ মোট ২১৬ জন ধর্ষণের শিকার হয়েছে। এর মধ্যে ১০১ শিশু ধর্ষণের শিকার এবং ২৫ শিশু সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হয়েছে। এ ছাড়া ১৬ শিশুসহ ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছে ২৩ জনকে। শ্লীলতাহানির শিকার হয়েছে ৫ জন, যার মধ্যে ৩ শিশু রয়েছে।

 

বিবৃতিতে আরও জানানো হয়েছে, ১২ শিশু যৌন নিপীড়নের শিকার হয়েছে। অ্যাসিড দগ্ধের শিকার হয়েছে ৪ শিশু এবং অ্যাসিডদগ্ধের কারণে মারা গেছে একজন। অগ্নিদগ্ধের শিকার হয়েছে দুজন। যার মধ্যে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। উত্ত্যক্তকরণের শিকার হয়েছে ১০ জন। অপহরণের ঘটনা ঘটেছে মোট ১২ জন। এরমধ্যে ৮ জন শিশু। পাচারের শিকার হয়েছে ৪ জন। যার মধ্যে এক শিশু পাচার শিকার হয়েছে। যৌনপল্লীতে ৩ জনকে বিক্রি করা হয়েছে। বিভিন্ন কারণে ১১ শিশুসহ ৪৪ জনকে হত্যা করা হয়েছে।

 

এ ছাড়া ৬ জনকে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। যৌতুকের কারণে নির্যাতনের শিকার হয়েছেন ৮ জন। শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয়েছেন ১৫ শিশুসহ ২১ জন। বিভিন্ন নির্যাতনের কারণে ৫ শিশুসহ আত্মহত্যা করেছে ৬ জন। ৮ শিশুসহ ৪৬ জনের রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। বাল্যবিয়েসংক্রান্ত ঘটনা ঘটেছে ৬টি। সাইবার ক্রাইম অপরাধের শিকার ৪ জন শিশুসহ ৮ জন।

 

রিপোর্টঃ পলাশ দেবনাথ দৈনিক এটিএম নিউজ সিলেট।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

doeltv38GRD5838
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By ATM News