সোমবার, ০২ অগাস্ট ২০২১, ০৯:৩৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হওয়া মোহাম্মদ হোসাইন এর এতিম দু শিশুর জন্য পূণর্বাসন ফাউন্ডেশন গঠন ও সহায়তা প্রদান; চলাচলের অনুপযোগী দোয়ারাবাজারের লাফার্জ ক্যাম্পের সামনের সড়ক: বেড়েই চলছে জনদূর্ভোগ  ধুনটে কনস্টেবল জগদীশ চন্দ্রকে অবসরকালীন বিদায় জানালো থানা পুলিশ খুলনা বিভাগে করোনায় ১৯ জনের মৃৃত্যু টেকনাফে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় এক রোহিঙ্গা উদ্ধার টানা বৃষ্টিতেপ্লাবিত কয়রা উপজেলা। করোনায় খুলনা বিভাগে ২৪ ঘন্টায় ৩৪ জনের মৃৃত্যু। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের 1 বছর একশত ১৫ দিন পার হলো বৃহস্পতিবার  বদরখালী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ওসমান গণির আকষ্মিক মৃত্যুতে এমপি জাফর আলম বিএ অনার্স এম এ এর শোক চকরিয়ায় চলাচলের রাস্তা কাঁটাতারের বেড়া দিয়ে ঘিরে রাখায় পথচারীদের হাঁটতে দারুণ ভোগান্তি 

ভোলা জেলার আনাচে-কানাচে গরু মোটা তাজাকরনের অবৈধ গোপন চাষী।

  • আপডেট টাইম : রবিবার, ২৫ এপ্রিল, ২০২১, ৪.৪৭ পিএম
  • ১০১ বার পঠিত

ভোলা জেলার আনাচে-কানাচে গরু মোটা তাজাকরনের অবৈধ গোপন চাষী।

 

মোঃ আবুল কাশেম, জেলা প্রতিনিধি, এটিএম নিউজ বাংলা, ভোলা, বরিশাল, বাংলাদেশ।

 

বাংলাদেশে স্টেরয়েড হরমনের ইনজেকশনের গরু মোটা তাজাকরনের রাষ্ট্র বিরেধী চাষীর গরু চুরি করার দৌড়ঝাঁপ ও দৌড়াত্ম বেড়েছে। আসন্ন ঈদুল আজহার কোরবানীর বাজারে বাজারজাত করার জন‍্য স্টেরয়েড হরমোনের গরু উৎপাদনের জন‍্য রাষ্ট্রসম্পদ দূর্বৃত্তায়নকারী চক্র সারাদেশে গরু মোটাতাজাকরণ কাজে তোড়জোর শুরু করেছে। তাদের লক্ষ্য হল আসন্ন ঈদুল আজহার কোরবানীর গরু-ছাগলের হাটবাজারে গরু কিনতে আসা গ্রাহকের টাকা-পয়সা হাতিয়ে নিয়ে যাওয়া। এর জন্য তারা গরুর দাম হাঁকিয়ে লক্ষ লক্ষ টাকা বাংলাদেশের সংবিধান বিরোধী ইসলাম ধর্মীয় কোরবানির গরুর ভিতর দিয়ে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি), জামায়াতে ইসলামী বাংলাদেশ (জাইবা), হেফাজতে ইসলামী, আহলে সুন্নতি, খেলাফতে মজলিসি সহ ইসলামের নামের বিভিন্ন ধর্মীয় গোষ্ঠির কাছে পৌঁছে দিয়ে স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার স্ব-পক্ষীয় জনগোষ্ঠীর নীতি-আদর্শ বিরোধী বাংলাদেশ উৎপাদন করে সমগ্র বাংলাদেশকে পাকিস্তানী রাজাকারের অধীনে নিয়ে যাওয়া ও পাকিস্তান সরকারের হাতে দেশটাকে তুলে দেওয়া। সেই প্রতিযোগিতায় নেমে রাষ্ট্র বিরোধী চক্র, বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ বিরোধী চক্র ও বাংলাদেশের সংবিধান বিরোধী চক্র গরুকে স্টেরয়েড হরমোনের ইনজেকশন প্রয়োগের মাধ‍্যমে গরু মোটা তাজাকরণ কাজে প্রতিযোগিতায় নেমেছে। সেই লক্ষ্যে হরমোন দিয়ে গরু মোটা তাজাকরণ বাহিনী আসন্ন ঈদুল আজহার কোরবানীর হাট-বাজারকে লক্ষ‍্য রেখে দেশের গরু-ছাগলের হাট-বাজারকে স্টেরয়েড হরমোন প্রয়োগের গরু ক্রয়ের হাট-বাজারে পরিনত করেছে। বর্তমানে ভোলা জেলার বিভিন্ন গরু-ছাগলের হাট-বাজারে গরু কিনতে আসা বেশীরভাগ গ্রাহকেরই নজর হলো- কোন্ গরুকে স্টেরয়েড হরমোনের ইনজেকশন দিলে গরুর উপর দ্রুত ক্রিয়া করবে তার উপর। যাতে আগামী ঈদুল আজহার কোরবানীর গরু ছাগল এর হাটে তিনগুন চারগুন দাম হাঁকিয়ে সর্বাধিক দামের উপযুক্ত চোখা গরুতে পরিনত করে গরু ক্রয়ের আগ্রহী গ্রাহকের টাকা-পয়সা বিক্রিত গরুর মধ‍্য দিয়ে লুট করে নেওয়া যায়। গরু কিনতে আসা এই জাতীয় গ্রাহকরা স্টেরয়েড হরমোন প্রয়োগের মাধ্যমে গরু মোটা তাজাকরণ চাষী। তাদের অন‍্যান‍্য পেশা কর্মের পাশাপাশি তারা বর্তমান মৌসুমকে তাদের মনোনীত গরু ক্রয়ের মৌসুম হিসেবে নিজেদেরকে বেশী বিনিয়োগ করার আগ্রহী। বিশ হাজার টাকার একটা গরুকে স্টেরয়েড হরমোন প্রয়োগ করে আগামী তিন-চার মাস সেবাযত্ন করে কিভাবে এক লক্ষ টাকার উপরের মূল‍্য মানের গরুতে পরিনত করা যায়, পঁচিশ হাজার টাকার একটা গরুকে স্টেরয়েড হরমোনের ইনজেকশন পুশ করে আগামী তিন-চার মাস সেবাযত্ন করে কিভাবে দেড় লক্ষ টাকার বেশী মূল‍্য মানের গরুতে পরিনত করা যায়, ত্রিশ হাজার টাকার একটা গরুকে আগামী তিন-চার মাস হরমোনাল সেবাযত্ন করে কিভাবে দুই লক্ষ টাকার উপরের মূল‍্য মানের গরুতে পরিনত করা যায়, পঁয়ত্রিশ হাজার টাকার একটা গরুকে স্টেরয়েড হরমোন প্রয়োগ করে আগামী তিন-চার মাস সেবাযত্ন করে কিভাবে সোয়া দুই লক্ষ টাকার উপরের মূল‍্য মানের গরুতে পরিনত করা যায়, চল্লিশ হাজার টাকার একটা গরুকে আগামী তিন-চার মাস হরমোনাল সেবাযত্ন করে কিভাবে আড়াই লক্ষ টাকার উপরের মূল‍্য মানের গরুতে পরিনত করা যায়, পঁয়তাল্লিশ হাজার টাকার একটা গরুকে আগামী তিন-চার মাস হরমোনের ইনজেকশনের সেবাযত্ন করে কিভাবে তিন লক্ষ টাকার উপরের মূল‍্য মানের গরুতে পরিনত করা যায়, বর্তমান বাজারের পঞ্চাশ হাজার টাকার একটা গরুকে আগামী তিন-চার মাস হরমোন সেবাযত্ন করে কিভাবে আগামী ঈদুল আজহার সময়ের কোরবানীর গরু-ছাগলের হাট-বাজারে সোয়া তিন লক্ষ টাকার উপরের চোখা মূল‍্য মানের গরুতে পরিনত করা যায়, পঞ্চান্ন হাজার টাকার একটা গরুকে স্টেরয়েড হরমোনের ইনজেকশন পুশ করে আগামী তিন চার মাস সেবাযত্ন করে কিভাবে সাড়ে তিন লক্ষ টাকার উপরের মূল‍্য মানের গরুতে পরিনত করা যায়, ষাট হাজার টাকার একটা গরুকে আগামী তিন-চার মাস হরমোনের ইনজেকশনের মাধ‍্যমে সেবাযত্ন করে কিভাবে চার লক্ষ টাকার উপরের মূল‍্য মানের গরুতে পরিনত করা যায়, পঁয়ষট্টি হাজার টাকার একটা গরুকে আগামী তিন-চার মাস স্টেরয়েড হরমোনের ইনজেকশনের সেবাযত্ন দিয়ে কিভাবে সোয়া চার লক্ষ টাকার উপরের মূল‍্য মানের গরুতে পরিনত করা যায়, সত্তর হাজার টাকার একটা গরুকে আগামী তিন-চার মাস সেবাযত্ন করে কিভাবে সাড়ে চার লক্ষ টাকার উপরের মূল‍্য মানের গরুতে পরিনত করা যায়, পঁচাত্তর হাজার টাকার একটা গরুকে আগামী তিন-চার মাস সেবাযত্ন করে কিভাবে পাঁচ লক্ষ টাকার উপরের মূল‍্য মানের গরুতে পরিনত করা যায়, আশি হাজার টাকার একটা গরুকে আগামী তিন-চার মাস হরমোনাল মোটা তাজাকরণ সেবাযত্ন করে কিভাবে সোয়া পাঁচ লক্ষ টাকার উপরের মূল‍্য মানের গরুতে পরিনত করা যায়, পঁচাশি হাজার টাকার একটা গরুকে আগামী তিন-চার মাস সেবাযত্ন করে কিভাবে সাড়ে পাঁচ লক্ষ টাকার উপরের মূল‍্য মানের গরুতে পরিনত করা যায়, নব্বই হাজার টাকার বর্তমান একটা তারুন‍্যপূর্ন গরুকে আগামী তিন চার মাস সেবাযত্ন করে কিভাবে ছয় লক্ষ টাকার উপরের মূল‍্য মানের গরুতে পরিনত করা যায়, পঁচানব্বই হাজার টাকার একটা গরুকে আগামী তিন-চার মাস হরমোনাল সেবাযত্ন করে কিভাবে সোয়া ছয় লক্ষ টাকার উপরের মূল‍্য মানের গরুতে পরিনত করা যায়, পঁচানব্বই হাজার হতে এক লক্ষ টাকার একটা পূর্ন তারুন‍্যের গরুকে আগামী তিন-চার মাস হরমোনাল সেবাযত্ন করে কিভাবে সাড়ে ছয় লক্ষ টাকা হতে দশলক্ষ, এগারোলক্ষ, ও বারোলক্ষ হতে পনেরলক্ষ টাকার উপরের মূল‍্য মানের গরুতে পরিনত করা যায়- এমন অসংখ্য লক্ষ‍্য নিয়ে গরু ক্রয়ের হাট-হাজারী বাজারী ক্রেতারা ঘোরাঘুরি করছে ও গরুর দরদাম কষাকষি করছে। এখন গরু ক্রয় করে আসন্ন কোরবানীর আগে হরমোনের ইনজেকশন পুশ করে সেবাযত্ন করে আগামী তিন-চার মাস পরের পশুর হাট-বাজারে কত লক্ষ টাকা হাঁকিয়ে হাতিয়ে নেওয়া যাবে এমন লক্ষ্যই সবার চোখেমুখে। গরু মোটা তাজাকরণের এই ক্রেতা ও চাষীদের অধিকাংশেরই লক্ষ‍্য হলো – আগামী কোরবানীর হাট বাজারে গরু বিক্রির মাধ‍্যমে দেশের কোঠি কোঠি টাকা হাতিয়ে নেওয়া ও কুক্ষিগত করা। আর সেই টাকার বৃহৎ লভ‍্যাংশ বর্তমান আওয়ামীলীগ সরকারের বিরুদ্ধের রাজনৈতিক কাজে ব‍্যবহার করা, উন্নত সমৃদ্ধ সোনার বাংলাদেশ গঠনের অর্থনৈতিক পথ থেকে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক চলার পথকে পিছলে দেওয়া, লাইনচ‍্যুত করা এবং সেই কোরবানীর পশুর হাটের নিরাপত্তাবলয়ে বাংলাদেশের সর্বশক্তিকে ব‍্যবহার করে প্রতি বছরের মত বাংলাদেশকে একটি লক্ষ‍্যভ্রষ্ট অর্থনৈতিক অসভ‍্য শক্তির বাংলাদেশে পরিনত করে স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বর্তমানের সকল প্রজন্মকে ধ্বংস করা। অন‍্য দিকে চিকিৎসা বিজ্ঞানের তথ‍্য হতে জানা যায় যে, স্টেরয়েড হরমোন এর মাধ‍্যমে মোটাতাজা করা গরুর মাংস সকল প্রাণীর মত মানব দেহের জন‍্য খুবই ক্ষতিকর। এই হরমোনের দ্বারা উৎপাদিত গরুর মাংশ নারী আসক্তি বাড়ায়, যৌন উত্তেজনা বৃদ্ধি করে, ধর্ষনের দূর্ঘন্ধ ছড়ায়, লুচ্চামি করার মানবে পরিনত করে, দেশের আইন-শৃঙ্খলা অমান‍্য করার নেশা উৎপাদন করে, রাষ্ট্র ও প্রজাতন্ত্র বিরোধী কাজে মগ্ন করে, মানবদেহে ক্ষণস্থায়ী বলিষ্ঠতা সৃষ্টি হয়, উশৃঙ্খল-বিশৃংখল প্রজন্ম তৈরীর শুক্রাণু-ডিম্বানু (ক্রোমোজোমাল এক্সওয়াই-XY) এর আধিপত্য বৃদ্ধি করে, মহাব‍্যাধি ইসলাম ধর্মীয় উগ্রতা ও নাশকতা ছড়ায়, ধর্মীয় সাম্প্রদায়িকতা উস্কে দেয়, সুদূরপ্রসারী চিন্তা-ভাবনার মেধা বিনষ্ট করে, বেয়াক্কেল-কমাক্কেল মানবে পরিনত করে, বাংলাদেশের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নীতিমালা নির্বোধ প্রজাতান্ত্রিক দায়িত্বশীল তৈরি করে, অশুদ্ধ মহাজাগতিক হিসাব-নিকাশ তৈরীকারী মেধাহীন মানব তৈরী করে, মহাশূন‍্যের মহাজাগতিক দূরত্ব হিসেব করার অশুদ্ধ মানব তৈরী করে। এ ছাড়াও স্টেরয়েড হরমোনের দ্বারা মোটাতাজা করা গরুর মাংশ খাওয়া লোকজন মানব বয়সে অমানবিক হয়, অল্পবয়সী হয়, স্বল্প বয়সে স্ট্রকি হয়, নিজ মস্তিষ্কের ন‍্যানেফাইবার বিধ্বংসী হয়, অল্প বয়সে বৃদ্ধ হয়, মৃত‍্যুর পূর্বকালে দূর্ঘন্ধময় হয়, অল্প বয়সে বধির, অল্প বয়সে কানা, অল্প বয়সে নাশকতাকারী হয় এবং অধিক ডেসিবলে শব্দ করার কন্টনালী বিশিষ্ট হয় বলে খবর পাওয়া গেছে। এছাড়াও বর্তমানে যারা ভোলা জেলায় গরু মোটা তাজাকরণ চাষে নিয়োজিত রয়েছে তাদের পূর্ব পুরুষেরা এক সময় পাকিস্তান সরকারের দালাল ছিল। বাঙালিদের গরু-মহিষ চুরি করে নিয়ে মাটির নীচে প্রকাণ্ড সুরঙ্গ করে সুরঙ্গের মধ‍্যে লুকিয়ে রাখত। নিজেরা নিজেরা উহা গোপনে জবাই করে ভক্ষন করার খোঁজ-খবর পাওয়া গেছে। স্টেরয়েড হরমোন দিয়ে গরু মোটা তাজাকরনের সেই রকম চাষীরা বর্তমানে পশুর হাট-বাজার হতে দালালির মাধ‍্যমে অনেকের গরু লুটে নেওয়ারও চেষ্টা করার খবর পাওয়া গেছে। শশীভূষন বাজারের ভূক্তভোগী এক গরু বিক্রেতা মানিক জানায়- স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়ে জ্ঞানহারা বৃদ্ধ শয‍্যাশায়ী মায়ের চিকিৎসার টাকা জোগাড় করার জন্য তার গৃহপালিত গরুটি বিক্রির উদ্দেশ্যে হাটে নিলে, চরমাইনকার গরু মোটা তাজাকরন চাষী স্টেরয়েড নূরনবী তার গরুটি চুয়ান্ন হাজার টাকা দরদাম করে, চার হাজার টাকা বায়না দিয়ে পঞ্চাশ হাজার টাকার পুরো টাকাটাই না দিয়ে, গরুটি নিয়ে যাওয়ার কয়েকদফা চেষ্টা করে। সেই হাটের দিন ও তার পরবর্তী কয়েক হাট মিস করায় নিজগৃহে চিকিৎসার জন‍্য অপেক্ষমান তার (মানিকের) মা ময়ফুল বেগম ছেলের গরু বিক্রির টাকা প্রাপ্তির আশায় বিনা চিকিৎসায় মৃত্যুবরন করেছে। সেই গরু ক্রেতা চক্র চরফ‍্যাশনের এওয়াজপুর ইউনিয়নের দুই নং ওয়ার্ডের সন্ত্রাসবাদী দেওয়ান বাহিনী চক্রের লোকজন বলে জানা গেছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আঞ্জুর হাটের এক গরু বিক্রেতা হাটে এসে স্টেরয়েড গরু চাষীর গরু ক্রয়ের খপ্পরে পরে গরু হারিয়ে গরুর দামের টাকার পুরোটাই না পেয়ে মহাজনের কাছে নগদে রাখা চাষের জমিও হারানোর খবর পাওয়া গেছে। ভোলার পাঙ্গাসিয়ার নিকটবর্তী হাটের এক গরু বিক্রেতা মফিজ গরু মোটা তাজাকরনের স্টেরয়েড চাষীর ক্রয়ানলে পড়ে সর্বস্ব হারিয়ে এখন সেই গরু ক্রয়ের দালালকে খোঁজাখুঁজি করছে। অনতিবিলম্বে স্টেরয়েড হরমোন প্রয়োগের ইনজেকশন দিয়ে গরু মোটা তাজাকরন চাষীদের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করা প্রয়োজন। যাতে বাংলাদেশের বাঙ্গালী বাংলাদেশী জাতি কোনভাবেই গরু মোটা তাজাকরনের দুষ্ট চক্রের হাতে পরে হরমোনের দ্বারা বেড়ে যাওয়া গোমাংসখোর হয়ে সভ‍্যতা বিধ্বংসী ধ্বংসাত্মক মানবে পরিনত হতে না পারে। ছবিতে স্টেরয়েড হরমোনের দ্বারা উৎপাদিত গরুর লড়াই।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

doeltv38GRD5838
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By BanglaHost