রবিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০৭:৫৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :

পেকুয়ায় দরিদ্র পরিবারের ভ্যান গাড়ি দিয়ে হাসি ফোটালেন প্রবাসী সজল

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১৬ জুন, ২০২০, ১১.৫৯ পিএম
  • ১০৯ বার পঠিত

পেকুয়া( কক্সবাজার) প্রতিনিধি

কক্সবাজারের পেকুয়ায় চারজন সন্তান এক স্ত্রীকে নিয়ে হত দরিদ্র আক্কাসের পরিবার। চার সন্তানের জনক ভ্যানচালক আক্কাস। ভ্যান চালিয়ে যা আয় হত তা দিয়ে চলত তার সংসার। ছোট্ট একটি নড়বড়ে কুটির ঘরে থাকতো তার পরিবার। অভাব-অনটনে চলছে নীরব কান্না।
অর্ধাহারে- অনাহারে কাটছে তাদের সংসার। আক্কাসের এই করুণ চিত্র তুলে ধরেন পেকুয়ায় একটি অনলাইন টিভিতে। প্রতিবেদনটি চোখে পড়লে তাৎক্ষনিক খাদ্য সামগ্রী দিয়ে সাহায্যের হাত বাড়ান নুর আয়েশা খান ফাউন্ডেশন এবং পেকুয়া ব্লাড ডোনার’স ফোরাম। দেয়া হয় তাদের পরিবারে শুকনো খাবার।
ভ্যানচালক আক্কাস জানান, করোনার এই পরিস্থিতিতে কর্মহীন ও বেকার দিন কাটছে। মাথা গোজাবার একমাত্র ঠাঁই কুঁড়ে ঘরটি ভাঙ্গা। মেরামত করতে হচ্ছে। কিন্তু অভাবের কারণে পাচ্ছে না ঘর মেরামত করতে। একদিকে একমুঠো ভাত খেতে সংসারে নুন আনতে পান্তা নেই। অন্যদিকে টাকার অভাবে আয়ের উৎস ভ্যান গাড়িটি বিক্রি করে দিয়েছি। বিক্রি হওয়া টাকা দিয়ে কুড়ে ঘরটি মেরামত করলাম। ভ্যান বিক্রির পর থমকে গেল আমার আয়ের উৎস। মনে মনে সিদ্ধান্ত নিলাম সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ও এনজিও সংস্থা থেকে ঝণ নিয়ে একটি ভ্যান ক্রয় করে পরিবারের হাল ধরবো। কিন্তু বৈশ্বিক মহামারী করোনার কারণে সরকারি-বেসরকারি অফিস-আদালত বন্ধ হয়ে যাওয়ায় ঋণ নেয়ার স্বপ্নও ভেস্তে গেল।
আক্কাসের আর্থিক দুর্দশার খবর জানতে পেরে পাশে দাঁড়ালেন পশ্চিম গোঁয়াখালি ১নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা কাতার প্রবাসী কাজী হোসাইন মোবারক সজল। তিনি তাকে একটি ভ্যান গাড়ি উপহার দেন।

প্রবাসী হোসাইন মোবারক সজল দৈনিক সরজমিন কে বলেন, প্রবাসে থেকেও পেকুয়ার হতদরিদ্র জনগোষ্ঠীর খবরা খবর দেখেছি। বর্তমান করোনার পরিস্থিতিতে সম্প্রতি নিম্ন আয়ের পরিবারের মাঝে শুকনো খাবার বিতরণ করেছি।

এদিকে আক্কাসের পরিবারকে নিয়ে পেকুয়ার স্থানীয় সংবাদকর্মীদের সচিত্র প্রতিবেদন দেখে দরিদ্র পরিবারের পাশে দাঁড়ানোর ইচ্ছে পোষণ করি। তিনি আরো বলেন, খাদ্য সামগ্রী দিলে হয়ত কয়েক দিন চলতে পারবে। কিন্তু স্থায়ীভাবে আয়ের উৎস হিসেবে ভ্যান গাড়ি আক্কাসের পরিবারের হাতে তুলে দিলাম। ১৫ই জুন (সোমবার) সকাল ১১টায় কাতার প্রবাসী কাজী হোসাইন মোবারক সজলের নিজ বাড়িতে আক্কাসের কাছে গাড়িটি হস্তান্তর করেন তার মা।

প্রবাসী হোসাইন মোবারক সজলের বড় ভাই প্রবাসী কাজী আশরাফ হোসাইন জানান, কাজি ছৈয়দা ফাউন্ডেশন সব সময় দরিদ্র মানুষের পাশে থাকবে। আজ আক্কাসের প্রতি যে সহায়তা প্রদান করা হলো তাতে আমাদের পরিবার ধন্য। সকলের সহযোগিতায় একার্যক্রম অব্যহত থাকবে । আমাদের মত এলাকার বিত্তবানরা এগিয়ে আসলে গরীব দুস্থ ও অসহায় পরিবারের দুঃখ লাঘব হবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, পেকুয়া ডট টিভি বাংলার চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব আখতারুজ্জামান চৌধুরী . প্রবাসী কাজী হোসাইন মোবারক সজলের ভাই কাজী মোশাররফ হোসাইন,গ্রামীন ব্যাংক পেকুয়া শাখার ব্যবস্থাপক মুহাম্মদ আহসান উল্লাহ ও পেকুয়া ব্লাড ডোনার’স ফোরামের সভাপতি ডেন্টিস্ট শফিকুল ইসলাম।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

doeltv38GRD5838
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By ATM News