সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:২৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :

দৃষ্টিনন্দন চন্দনপুরা মসজিদ

  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ৩ জুলাই, ২০২০, ৯.১২ পিএম
  • ২০৬ বার পঠিত

ইমরান বিন বদরী
পৃথিবীতে উত্তম কাজগুলোর একটি হচ্ছে মসজিদ নির্মাণ করা। মসজিদের চেয়ে পবিত্রতম স্থান আর কোথাও নেই। অতীতে ইসলামের অধিকাংশ গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত এ মসজিদ থেকেই নেয়া হতো। মোটকথা, মসজিদ নির্মাণের গুরুত্ব অপরিসীম। ছোট্ট একটি মসজিদ নির্মাণেও রয়েছে আল্লাহর পক্ষ থেকে উত্তম প্রতিদান। হজরত আব্দুল্লাহ ইবনে আব্বাস রাদ্বিয়াল্লাহু আনহুর বলেন, পাখির ডিমের মতো ছোট্ট হলেও এর গুরুত্ব রয়েছে অনেক, বিনিময়ে মিলে যাবে জান্নাতে একটি ঘর।

খলিফাতুল মুসলিমীন হজরত উসমান ইবনে আফফান রাদ্বিয়াল্লাহু আনহুও এ প্রসঙ্গে বলেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, “যে ব্যক্তি আল্লাহ তায়া’লার সন্তুষ্টি অর্জনের নিমিত্তে একটি মসজিদ নির্মাণ করবে (দুনিয়াতে) আল্লাহ তার জন্য স্পেশাল একটি ঘর নির্মাণ করবে জান্নাতে”। (মুত্তাফাকুন আলাইহ)

যতবার পাশদিয়ে গিয়েছি একবারো ভুল হয়নি দৃষ্টিনন্দন মসজিদটির সৌন্দর্য উপভোগ করতে। হ্যাঁ আমি চট্টগ্রামের আন্দরকিল্লা থেকে চকবাজারের যোগাযোগ সংযোস্থল নবাব সিরাজুদ দৌলা রোডের মনোমুগ্ধকর চন্দনপুরা জামে মসজিদের কথাই বলছি।

উইকিপিডিয়ার তথ্যমতে মোঘলদের নির্মিত স্থাপত্যের ন্যায় হলেও দৃষ্টিনন্দন এ স্থাপত্যটি মূলত ব্রিটিশ শাসনামলে ১৯৪৭ সালে মোঘল স্থাপত্য ঘরনায় মসজিদটির সংস্কার কাজ শুরু হয় এবং তা সম্পন্ন হয় ১৯৫২ সালে বিশিষ্ঠ সমাজসেবী এবং চট্টগ্রামের ধনাঢ্য ব্যবসায়ী মরহুম আবু শাহিদ দোভাষ, ভারতের লখনৌ থেকে কারিগর এনে এই দৃষ্টিনন্দন মসজিদটি তৈরী করেছিলেন। প্রায় ১৩ শতক জায়গায় দ্বিতল এ মসজিদটি নির্মিত। মসজিদে রয়েছে ছোট-বড় ১৫টি গম্বুজ। প্রতিটি গম্বুজে যাওয়ার জন্য আছে আলাদা সিঁড়ি। এ মসজিদে গম্বুজ ও সিঁড়িতে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে মোগল স্থাপত্য নিদর্শনের প্রতিচ্ছবি। আজকাল মসজিদে সুউচ্চ মিনার নির্মিত হয়না। কিন্তু তৎকালীন সময়ে মাইকের এতো ব্যবহার ছিল না বলে এ মসজিদে উঁচু মিনারে উঠে আজান দেয়া হতো। এখনো সে-ই মিনার প্রতীয়মান।

সূক্ষ্ম কারুকাজে নির্মিত মসজিদটির নির্মাণশৈলী স্বচক্ষে দেখলে আপনিও বিস্মিত হবেন। এ যেন এক নান্দনিকতার প্রতীক। মসজিদের চারদিকে যেন এ এক রঙের মেলা। সুনিপুণ হাতের নিখুঁত শক্তিতে লতা-পাতার নকশায় বিচিত্র সৌন্দর্য ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। মসজিদটির বাহ্যিক সৌন্দর্য এককথায় অসাধারণ! এসব নির্মাণশৈলী মূলত আমাদের উদ্বুদ্ধ করে মসজিদ নির্মাণের গুরুত্ব অনুধাবণে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

doeltv38GRD5838
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By ATM News