সোমবার, ০২ অগাস্ট ২০২১, ০৮:১১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হওয়া মোহাম্মদ হোসাইন এর এতিম দু শিশুর জন্য পূণর্বাসন ফাউন্ডেশন গঠন ও সহায়তা প্রদান; চলাচলের অনুপযোগী দোয়ারাবাজারের লাফার্জ ক্যাম্পের সামনের সড়ক: বেড়েই চলছে জনদূর্ভোগ  ধুনটে কনস্টেবল জগদীশ চন্দ্রকে অবসরকালীন বিদায় জানালো থানা পুলিশ খুলনা বিভাগে করোনায় ১৯ জনের মৃৃত্যু টেকনাফে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় এক রোহিঙ্গা উদ্ধার টানা বৃষ্টিতেপ্লাবিত কয়রা উপজেলা। করোনায় খুলনা বিভাগে ২৪ ঘন্টায় ৩৪ জনের মৃৃত্যু। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের 1 বছর একশত ১৫ দিন পার হলো বৃহস্পতিবার  বদরখালী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ওসমান গণির আকষ্মিক মৃত্যুতে এমপি জাফর আলম বিএ অনার্স এম এ এর শোক চকরিয়ায় চলাচলের রাস্তা কাঁটাতারের বেড়া দিয়ে ঘিরে রাখায় পথচারীদের হাঁটতে দারুণ ভোগান্তি 

তিন বছরে জিডিপি প্রবৃদ্ধি সাড়ে ৮ শতাংশে নেয়ার উচ্চাভিলাষ

  • আপডেট টাইম : রবিবার, ২৮ জুন, ২০২০, ৩.৩৮ পিএম
  • ১৮০ বার পঠিত

করোনাভাইরাস বা কোভিড-১৯ এর প্রাদুর্ভাবের কারণে বিশ্ব অর্থনৈতিক পরিস্থিতি যখন বিপর্যস্ত, বৈশ্বিক অর্থনীতি যখন দীর্ঘস্থায়ী মন্দার দিকে এগিয়ে যাচ্ছে, ঠিক তখনই সরকার আগামী তিন অর্থবছরে দেশের জিডিপি প্রবৃদ্ধি প্রায় সাড়ে ৮ শতাংশের ঘরে নিয়ে যাওয়ার জন্য উচ্চাভিলাষী টার্গেট নিয়েছে। সরকারের প্রক্ষেপণ অনুযায়ী আগামী ২০২০-২১ অর্থবছরে জিডিপি প্রবৃদ্ধি ধরা হয়েছে আট দশমিক ২০ শতাংশ এবং পরবর্তী দুই অর্থবছরে এই প্রবৃদ্ধি প্রক্ষেপণ করা হয়েছে যথাক্রমে আট দশমিক ৩০ এবং আট দশমিক ৪০ শতাংশ।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের ‘সামষ্টিক অর্থনৈতিক পরিস্থিতি ও মধ্যমেয়াদি দৃশকল্প’-এ চিত্র উপস্থাপন করা হয়েছে। কিন্তু আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো এর আগে জিডিপি প্রবৃদ্ধির বিষয়ে সম্পূর্ণ ভিন্ন চিত্র তুলে ধরেছিল। যেমন বিশ্বব্যাংকের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ২০২০-২১ অর্থবছরে প্রবৃদ্ধি আরো কমে ১ শতাংশে আসতে পারে। একই সাথে তারপরের অর্থবছরে (২০২১-২২) এই প্রবৃদ্ধি কিছুটা বেড়ে ২ দশমিক ৮ থেকে ৩ দশমিক ৯ শতাংশ হতে পারে। আইএমএফের পক্ষ থেকেও প্রায় একই ধরনের প্রক্ষেপণ করা হয়।

জিডিপির বিষয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের বক্তব্য হচ্ছে, মধ্যমেয়াদি সামষ্টিক অর্থনৈতিক কাঠামোর প্রক্ষেপণ অনুসারে চলতি অর্থবছরে জিডিপি প্রবৃদ্ধির সংশোধিত লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৫ দশমিক ২ শতাংশ (আগে ছিল ৮ দশমিক ২ শতাংশ) এবং আগামী অর্থবছরে অর্থনীতি তার আগের অবস্থায় ফিরে আসবে ধরে নিয়ে প্রবৃদ্ধির হার প্রক্ষেপণ করা হয়েছে ৮ দশমিক ২ শতাংশ। পর্যায়ক্রমে ২০২১-২২ এবং ২০২২-২৩ অর্থবছরে যথাক্রমে তা প্রক্ষেপণ করা হয়েছে যথাক্রমে ৮ দশমিক ৩০ এবং ৮ দশমিক ৪০ শতাংশ।

অন্য দিকে, ২০২২-২৩ অর্থবছরে কৃষি, শিল্প ও সেবা খাতের প্রবৃদ্ধি প্রক্ষেপণ করা হয়েছে যথাক্রমে ৫.৫, ১৩.৭ এবং ৫.৩ শতাংশ। বিশ্ব এবং অভ্যন্তরীণ অর্থনীতি কোভিড-১৯ প্রভাব থেকে ধীরে ধীরে পুনরুদ্ধার করবে এবং ক্রমবর্ধমান বিনিয়োগ ও বিভিন্ন সেক্টরে চলমান নানামুখী সংস্কারকার্যক্রম এবং প্রণোদনা প্যাকেজ বাস্তবায়নের ফলে শক্তিশালী অভ্যন্তরীণ অর্থনীতির প্রেক্ষাপট বিবেচনায় নিয়ে মধ্য মেয়াদে গড় জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৮ শতাংশের ওপরে প্রক্ষেপণ করা হয় বলে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে উল্লেখ করা হয়েছে।

তবে এ বিষয়ে বিশ্বব্যাংক ঢাকা অফিসের সাবেক মুখ্য অর্থনীতিবিদ ড. জাহিদ হোসেন নয়া দিগন্তকে বলেছেন, বর্তমান অর্থনীতির যে অবস্থা তাতে জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৮ দশমিক ২ শতাংশ অর্জন সম্ভব নয়। কারণ আমরা করোনাভাইরাসকে নিয়ন্ত্রণে আনতে পারিনি। বর্তমান পরিস্থিতিতে সামষ্টিক কাঠামোতে আগামী অর্থবছরে সরকারের নেয়া জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৮ দশমিক ২ শতাংশ অর্জন অবাস্তব। এ অবস্থায় অর্জন করা একেবারেই অসম্ভব। প্রবৃদ্ধি ৮ দশমিক ২ শতাংশ আসার তো আমি কোনো জায়গা দেখি না।

উল্লেখ্য, এর আগে বিশ্বব্যাংকের পক্ষ থেকে একাধিক প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছিল, করোনার কারণে চলতি অর্থবছরে (২০১৯-২০) দেশের জিডিপি প্রবৃদ্ধি ২ থেকে ৩ শতাংশ হতে পারে। শুধু তাই নয়, এর পরের অর্থবছরে প্রবৃদ্ধি আরো কমে হবে ১ দশমিক ২ শতাংশ থেকে ২ দশমিক ৩ শতাংশ। তারপরের অর্থবছরে (২০২১-২২) এ প্রবৃদ্ধি কিছুটা বেড়ে ২ দশমিক ৮ থেকে ৩ দশমিক ৯ শতাংশ হতে পারে। তবে অর্থমন্ত্রী বিশ্বব্যাংকের এ পূর্বাভাষকে ‘অপরিপক্ব’ হিসেবে বর্ণনা করে গণমাধ্যমকে বলেছিলেন, এ সময়ে বিশ্বব্যাংকের এ তথ্য দেয়া ঠিক হয়নি। বাংলাদেশে জিডিপি প্রবৃদ্ধি কোনোভাবে চলতি অর্থবছরে ৬ শতাংশের নিচে নামবে না।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

doeltv38GRD5838
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By BanglaHost