মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ০২:১৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :

ট্রাম্পের স্বাস্থ্য নিয়ে কানাঘুষা

  • আপডেট টাইম : সোমবার, ১৫ জুন, ২০২০, ৫.৪১ পিএম
  • ১০৩ বার পঠিত

রোববার ৭৪ বছরের জন্মদিন পালন করলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। নভেম্বরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জিতলে তিনি আরো চার বছরের জন্য প্রেসিডেন্ট থাকতে চলেছেন। অথচ শনিবারের একটি ঘটনার পর তার স্বাস্থ্য নিয়ে জল্পনাকল্পনা শুরু হয়ে গেছে। এক সামরিক অ্যাকাডেমি পরিদর্শনের সময় তার হাঁটাচলার ছন্দ ও শরীরের ভারসাম্যে সমস্যা লক্ষ্য করা গেছে। কিছু শব্দ উচ্চারণ করতেও তার অসুবিধা হচ্ছিল। চলতি মাসের শুরুতে ট্রাম্পের স্বাস্থ্য পরীক্ষার রিপোর্টে অতিরিক্ত ওজন ছাড়া অন্য কোনো সমস্যা উঠে না এলেও শনিবারের ঘটনার পর নতুন করে প্রশ্ন উঠছে।

আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ট্রাম্পের প্রতিপক্ষ জো বাইডেনের স্বাস্থ্য নিয়ে ট্রাম্প নিজে বার বার ব্যাঙ্গ-বিদ্রুপ করে চলেছেন। ডেমোক্র্যাটিক দলের পদপ্রার্থীর বয়স ট্রাম্পের চেয়ে তিন বছর বেশি। নিজের শারীরিক ক্ষমতা তুলে ধরে ট্রাম্প বাইডেনকে দুর্বল হিসেবে তুলে ধরছেন। প্রতিপক্ষের শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে প্রশ্ন তুলে একাধিক মন্তব্য ও টুইট করেছেন ট্রাম্প।

শনিবারের ঘটনার ব্যাখ্যা দিতে ট্রাম্প নিজে এক টুইট বার্তায় লিখেছেন যে, তার স্বাস্থ্য নিয়ে ‘ফেক নিউজ’ বা ভুয়া খবরে কান দেবার কোনো প্রয়োজন নেই। তার দাবি, শনিবার ওয়েস্ট পয়েন্ট সামরিক অ্যাকাডেমিতে যে র‌্যাম্পের উপর তাকে হাঁটতে হয়েছিল, তা ছিল দীর্ঘ এবং খাড়া। কোনো রেলিং ধরে হাঁটারও উপায় ছিল না। তার উপর পিছলে যাবার ভয়ও ছিল৷ শেষ দশ ফিট অংশ। তিনি দৌড়ে সমতলে পৌঁছে গিয়েছিলেন বলে মনে করিয়ে দেন ট্রাম্প।

প্রেসিডেন্টের নিজের এই ব্যাখ্যা সত্ত্বেও সংশয় দূর হচ্ছে না। কারণ সে দিন এক গ্লাস পানি খেতে গিয়েও তাকে বেশ বেগ পেতে হচ্ছিল। ডান হাতে গ্লাস তুলতে সমস্যার পর বাম হাত দিয়ে পরিস্থিতি সামাল দেবার চেষ্টা করছিলেন তিনি। তাছাড়া আমেরিকার বেশ কয়েকজন বিখ্যাত মানুষের নাম উচ্চারণ করতে গিয়ে হোঁচট খাচ্ছিলেন ট্রাম্প। আগেও অবশ্য তার এমন ভুল হয়েছে।

করোনামুক্ত থাকতে ডাক্তারদের পরামর্শ উপেক্ষা করে তিনি যেভাবে ম্যালেরিয়ার ওষুধ হাইড্রোক্লোরোকুইন খেয়ে চলেছেন, তার ফলেও ট্রাম্পের উপর সবার বাড়তি নজর রয়েছে। উল্লেখ্য, বিশেষজ্ঞরা এই ওষুধের পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া সম্পর্কে বার বার সতর্ক করে দিচ্ছেন।

নভেম্বরের নির্বাচনে ট্রাম্প বা বাইডেন, যারই জয় হোক না কেন – এমন প্রেক্ষাপটে আগামী চার বছর ধরে তার স্বাস্থ্য নিয়ে দুশ্চিন্তা থেকেই যাচ্ছে। প্রেসিডেন্ট হিসেবে সেই ব্যক্তি চার বছরের মেয়াদ পূর্ণ করতে পারবেন কিনা, সেই প্রশ্নও উঠছে। তাই ভাইস প্রেসিডেন্ট প্রার্থী বাছাইয়ের প্রক্রিয়াকে ঘিরে বাড়তি আগ্রহ দেখা দিচ্ছে। বর্তমান ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স আরও চার বছরের জন্য নিজের পদে থাকতে আগ্রহী কিনা, অথবা ট্রাম্প আবার জিতলে তাকে সেই পদে বহাল রাখবেন কিনা, তা এখনো স্পষ্ট নয়।

অন্যদিকে বাইডেন এখনো ভাইস প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী বাছাই করেননি। অনেক মহল থেকে সেই পদে কোনো কৃষ্ণাঙ্গ নারী বাছাই করার জন্য তার উপর চাপ আসছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

doeltv38GRD5838
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By ATM News