সোমবার, ২৬ জুলাই ২০২১, ১১:৫৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
চকরিয়ার ঐতিহ্যবাহী বদরখালী বাজারে দূর্ধর্ষ চুরি ঈদগাঁওকে নবম উপজেলায় রূপান্তরিত, প্রধানমন্ত্রীকে কৃতজ্ঞতা জানালেন কউক চেয়ারম্যান ফোরকান। নওগাঁয় পুকুরে ডুবে তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রীর মর্মান্তিক মৃত্যু  নওগাঁয় র‍্যাব এর অভিযানে বিপুল পরিমাণ বাংলা মদ সহ আটক ৩ জন মহেশখালী প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা মরহুম শফিক উল্লাহ খাঁন -এর জেয়াফত অনুষ্টান অনুষ্ঠিত নওগাঁয় পাট ক্ষেত থেকে যুবকের গলাকাটা লাশ উদ্ধার আধুনিক পুলিশিং এর পথে আরেক ধাপঃ ডিউটিরত পুলিশ সদস্যদের শরীরে স্থাপন করা হল বডি ওর্ন ক্যামেরা চন্দনাইশে খুরশীদ আলম”” পিতা আবদুর রাজ্জাক নিরহ দোকান দারের উপর নব্য আওয়ামী লীগের নামদারি সন্ত্রাসীদের হামলা।  ৪০ হাজার ইয়াবা নিয়ে মরিচ্যা চেকপোস্টে আটক এক,জব্দ টমটম।  নওগাঁয় ঘাতক ট্রাক্টর কেড়ে নিলো দুই ভাইয়ের প্রাণ 

আকবরের সাথে চিকিৎসকেরও বিচার চাইলেন রায়হানের মা”

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১০ নভেম্বর, ২০২০, ১১.৩৮ এএম
  • ৫৯ বার পঠিত

“আকবরের সাথে চিকিৎসকেরও বিচার চাইলেন রায়হানের মা”

 

বিচার চাইলেন রায়হানের মা

আকবর গ্রেপ্তার হয়েছে এতে আমরা খুশি আছি। কিন্তু আমারা তো আমার রায়হানরে ফিরিয়া পাইতাম নায় ঠিক। আকবরের বিচারটা এমনভাবে হউক জনতার সামনে, রাজপথে, কোর্টের সামনে। এখানে বিচার হোক। জনতা দেখুক আকবরের বিচার। আকবরের সাথে যারা যারা জড়িত আছে সবাইকে ধরে শাস্তি দেওয়া হোক।’কথাগুলো সিলেটে পুলিশ ফাঁড়িতে নির্যাতনে নিহত রায়হান আহমদের মা সালমা বেগমের।পুত্র রায়হান আহমদ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় মূল অভিযুক্ত পুলিশের উপ পরিদর্শক (এসআই) আকবর হোসেন ভূঁইয়া গ্রেপ্তারের খবর শুনে সন্তুষ্টি প্রকাশের পাশাপাশি ঘটনায় জড়িত সকলের শাস্তি দাবি করে সোমবার বিকেলে গণমাধ্যমকর্মীদের কাছে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন সালমা বেগম।রায়হানের মা বলেন, ‘ঘটনার পর মেডিকেলের ডাক্তার বার বার আমার ছেলের কথা বানিয়েছিল। একবার বলেছিল এক্সিডেন্ট, একবার বলেছিল গনধোলাই। একবার বলেছিল স্ট্রোক। এই যে আমরা সাধারণ জনগণ, সাধারণ মানুষ ডাক্তারের কাছে যাই। সুষ্ঠু চিকিৎসার জন্য। কিন্তু এই ডাক্তার বেইমান আকবরের সাথে হাত মিলিয়ে আমার ছেলে রায়হানের ব্যাপারে অনেক কথা বলেছে। এইরকম আকবের সাথে ডাক্তারও জড়িত। ডাক্তারের বিচারটা হোক।’আকবরের সঙ্গে তার সকল সহযোগীরও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন রায়হানের স্ত্রী তাহমিনা আক্তার তান্নি।এদিকে ঘটনার প্রায় ২৮ দিন পর সোমবার সকালে কানাইঘাট উপজেলার লক্ষীপ্রসাদ ইউনিয়নের ডোনা সীমান্ত এলাকা থেকে এসআই আকবর হোসেন ভূঁইয়া গ্রেপ্তারের কথা জানায় পুলিশ। সন্ধ্যা ৫টা ৫৫ মিনিটে কঠোর নিরাপত্তায় তাকে কানাইঘাট থেকে সিলেট পুলিশ সুপার কার্যালয়ে নিয়ে আসা হয়। এসময় বিক্ষুব্ধ জনতা আকবরের ফাঁসি চেয়ে স্লোগান দিতে থাকেন।এরপর রাত পৌনে ৮টার দিকে পুলিশ ফাঁড়িতে নির্যাতনে রায়হান আহমদ নিহতের ঘটনায় প্রধান অভিযুক্ত পুলিশের বহিষ্কৃত উপ পরিদর্শক আকবর হোসেন ভূঁইয়াকে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআর)-এর কাছে হস্তান্তর করা হয়।প্রসঙ্গত, গত ১০ অক্টোবর শনিবার মধ্যরাতে রায়হানকে নগরীর কাষ্টঘর থেকে ধরে আনে বন্দরবাজার ফাঁড়ি পুলিশ। পরদিন ১১ অক্টোবর ভোরে ওসমানী হাসপাতালে তিনি মারা যান। রায়হানের পরিবারের অভিযোগ, ফাঁড়িতে ধরে এনে রাতভর নির্যাতনের ফলে রায়হান মারা যান। ১১ অক্টোবর রাতেই রায়হানের স্ত্রী তাহমিনা আক্তার বাদী হয়ে নির্যাতন ও হেফাজতে মৃত্যু (নিবারণ) আইনে মামলা করেন।

 

রিপোর্টঃ পলাশ দেবনাথ দৈনিক এটিএম নিউজ সিলেট।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

doeltv38GRD5838
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By BanglaHost